Categories
Mobile Mobile price BD

Hyundai বিশ্ববাজার কাঁপানো ইলেকট্রিক গাড়ি ভারতে আনছে, 480 কিমি মাইলেজ, কবে লঞ্চ


Hyundai Ioniq 5 bookings open from 20 December

ব্যক্তিগত গাড়ির দুনিয়ায় নিজেদের জায়গা বহুকাল ধরেই শক্তপোক্ত করে রেখেছে কোরিয়ান গাড়ি নির্মাতা হুন্ডাই (Hyundai)। এযাবৎ কাল পর্যন্ত জীবাশ্ম জ্বালানি চালিত যথেষ্ট রিফাইন্ড ইঞ্জিন ও পারফরম্যান্স প্রধান গাড়ি নির্মাতা হিসাবেই পরিচিতি তাদের। তবে বর্তমান ট্রেন্ড অনুযায়ী ব্যাটারি চালিত গাড়ির জগতেও পা রেখেছে তারা। ভারতে তাদের প্রথম বৈদ্যুতিক গাড়ি Kona যথেষ্টই জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। এবার আসতে চলেছে তাদের দ্বিতীয় ইলেকট্রিক কার Ioniq 5। যা এর মধ্যেই বিশ্বের একাধিক দেশে উপলব্ধ এবং উচ্চ প্রশংসিত।

জল্পনা শোনা যাচ্ছে, আগামী বছরের জানুয়ারিতে অনুষ্ঠিত অটো এক্সপোতে আনুষ্ঠানিকভাবে ভারতে বাজারে লঞ্চ হবে Hyundai Ioniq 5 । তার আগে ডিসেম্বরের ২০ তারিখ থেকে ইলেকট্রিক গাড়িটি বুকিংয়ের ঘোষণা করল হুন্ডাই। ভারতে সংস্থার অফিসিয়াল ওয়েবসাইট থেকে গ্রাহকরা বুকিং করতে পারবেন।

প্রসঙ্গত ইলেকট্রিক গ্লোবাল মডিউলার প্ল্যাটফর্মের উপর নির্ভর করেই তৈরি করা হয়েছে Ioniq 5 মডেলটি। এতে রয়েছে দুই ধরনের ব্যাটারি প্যাক। রিয়ার হুইল ড্রাইভ (RWD) এবং অল হুইল ড্রাইভ(AWD) ভ্যারিয়েন্টে আসা এই গাড়ি ৫৮ কিলোওয়াট আওয়ার ও ৭২.৬ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি প্যাক বেছে নেওয়া যায়।

হুন্ডাই মোটরের ভারতীয় শাখার ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও উনস কিম বলেন,”Ioniq 5 এর সাহায্যে আমরা পরিবহনের ক্ষেত্রে সমস্ত গ্রাহকদের অভিজ্ঞতার পরিবর্তন ঘটাতে চলেছি। গ্রাহকগণ এরপর থেকে তাদের জীবন শৈলীর সঙ্গে যুক্ত প্রত্যেকটি মুহূর্তর সাথে যাতায়াতের মাধ্যমের এক অনন্য মেলবন্ধন ঘটাতে পারবে”।

Hyundai Ioniq 5 গাড়িটির মধ্যে থাকা দুই ধরনের ব্যাটারির ক্ষেত্রে মিলবে আলাদা রাইডিং রেঞ্জ। ৫৮ কিলোওয়াট আওয়ারের ছোট ব্যাটারি প্যাকের সাহায্যে এক চার্জে এটি ৩৮৫ কিমি পথ পাড়ি দিতে পারবে। অন্যদিকে ৭২.৬ কিলোওয়াট আওয়ার ব্যাটারি প্যাক সম্বলিত সংস্করণটি চার্জে পরিপুষ্ট অবস্থায় ৪৮০ কিমি রাস্তা চলতে পারবে বলে দাবি করা হয়েছে। এছাড়াও ৩৮০ কিলোওয়াটের ডিসি ফার্স্ট চার্জারের সাহায্যে শূন্য থেকে ৮০ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ করতে সময় লাগবে মাত্র ১৮ মিনিট। যদিও এর ভারতীয় সংস্করণে কোন ব্যাটারি প্যাক থাকবে তা এখনো পর্যন্ত নিশ্চিত করে জানা যায়নি।

হুন্ডাই আয়োনিক ৫ গাড়িটির কেবিনের আতিশয্য অনেক বেশি প্রিমিয়াম কোয়ালিটির এবং অ্যাডভান্সড প্রযুক্তিযুক্ত। এতে রয়েছে ১২.৩ ইঞ্চির এইচডি টাচ স্ক্রিন ও আরো একটি ১২.৩ ইঞ্চির ড্রাইভার ডিসপ্লে। উপরন্তু ওয়ারলেস ফোন চার্জিং, হেড-আপ ডিসপ্লে, সানরুফ ও লেদার সিটের মত প্রিমিয়াম টাচ রয়েছে এর অন্দরমহলে।

এছাড়াও আয়োনিক ৫ এর বাইরের ডিজাইন হুন্ডাইয়ের অন্যান্য মডেলগুলির তুলনায় বেশ আলাদা। এর সামনে থাকা এলইডি ডিআরএল যুক্ত এলইডি হেডলাইট ও এলইডি টেললাইট বেশ আকর্ষণীয়। এমনকি ২০২১ সালে ইউরোপের বাজারে এই গাড়িটিকে ইউরোএনক্যাপ-এর পক্ষ থেকে ফাইভ স্টার সেফটি রেটিং দেওয়া হয়েছে।

ভারতের বাজারে অফিসিয়ালি লঞ্চের পর এটি সরাসরি প্রতিদ্বন্দ্বিতা জানাবে Kia EV6 ও Volvo XC40 Recharge-কে। লঞ্চ হওয়ার পরেই হুন্ডাই তাদের এই গাড়িটির দাম প্রকাশ করবে। যদিও Kia EV6 মতোই অ্যাগ্রেসিভ প্রাইস নিয়ে হাজির হবে এটি। বর্তমানে কিয়ার এই গাড়িটির এক্স শোরুম মূল্য ৬০ লক্ষ টাকা। অর্থাৎ Ioniq 5 লঞ্চ হওয়ার পর ভারতবর্ষের হুন্ডাইয়ের সবচেয়ে দামি গাড়ির তকমা পাবে।



Source link